সিলেটি নাটকের অভিনেত্রী সুমাইয়া আক্তার মৌ এবারও আলোচনায় | Sylhet i News
মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৫০ পূর্বাহ্ন



নিজস্ব প্রতিবেদন ::

প্রকাশ ২০২২-০১-১৪ ০৭:৩৪:৫১
সিলেটি নাটকের অভিনেত্রী সুমাইয়া আক্তার মৌ এবারও আলোচনায়

সিলেটে নানা কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে আলোচনায় আসেন সুমাইয়া আক্তার মৌ। গ্রেফতারও হয়েছেন একাধিকবার।

এবার ফেন্সিডিলসহ  বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যারাতে সিলেটের সালুটিকর থেকে মাদকদ্রব্যসহ মৌ ও তার এক পুরুষ সঙ্গীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সুমাইয়া আক্তার মৌ সিলেটের দক্ষিণ সুরমার স্বর্ণশিখা আবাসিক এলাকার ৫ নম্বর বাসার শাহেদ মিয়ার মেয়ে। তিনি অভিনেত্রী ও মডেল হিসেবে  পরিচিত থাকলেও মাদকদ্রব্য সেবন ও বিক্রির সঙ্গে জড়িত।  ২০১৪ সাল থেকে তিনি আলোচনায়। ওই সময় তিনি তার দুই প্রেমিকসহ বন্দরবাজার থেকে গ্রেফতার হন।

সিলেটের আঞ্চলিক ভাষার নাটকের অভিনেত্রী হিসেবে মৌ’র পরিচিতি থাকলেও একাধিক  সময় তার বিরুদ্ধে অনৈতিক কাজ এবং মাদকদ্রব্য সেবন ও বিক্রির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠে। তিনি বিভিন্ন পার্টিতে নাচেন।

প্রেমের ফাঁদে ফেলে পুুরুষদের কাছ থেকে বড় অংকের টাকাও হাতিয়ে নেওয়ার গুরুতর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

নগরীর চারাদিঘীরপাড় থেকে মাদকদ্রব্যসহ আরো একবার গ্রেফতার হন মৌ।

সর্বশেষ বৃহস্পতিবার ফেন্সিডিলসহ সিলেটের গোয়াইনঘাট থানাধীণ সালুটিকর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশের অভিযানে ভারতীয় ফেনসিডিলসহ সুমাইয়া আক্তার মৌ নামের এক টিভি অভিনেত্রী ও সোহেল আহমদ নামের এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারী) রাত সাড়ে ৭ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আম্বরখানা- ভোলাগঞ্জ মহাসড়কের বহর ঘাটা থেকে আমদানি নিষিদ্ধ ভারতীয় দুই বোতল ফেনসিডিলসহ তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ। ধৃতরা হলেন সিলেট দক্ষিণ সুরমার স্বর্ণ শিখা -৫ বাসার শাহেদ মিয়ার মেয়ে টিভি অভিনেত্রী সুমাইয়া আক্তার মৌ(২৩) ও সিলেট জালালাবাদ থানার নাজিরের গাওঁ গ্রামের আব্দুস শুকুরের ছেলে সোহেল আহমদ (৩৫)। সালুটিকর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মোঃ শফিকুল ইসলাম খান জানান, গোপন সংবাদ পেয়ে সালুটিকর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের টু-আইসি এসআই জহিরুল ইসলাম, এসআই খালেদ মিয়া, এএসআই মহিউদ্দিন ও মেহেরুল সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে আম্বরখানা- ভোলাগঞ্জ মহাসড়কের বহর ঘাটা থেকে আমদানি নিষিদ্ধ ভারতীয় দুই বোতল ফেনসিডিলসহ তাদের গ্রেফতার করা হয়। 

এব্যাপারে গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ পরিমল চন্দ্র দেব বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সালুটিকর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ টীম আম্বরখানা- ভোলাগঞ্জ মহাসড়কের বহর ঘাটা থেকে দুই বোতল ফেনসিডিলসহ সুমাইয়া ও সোহেলকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা (রুজু) করার প্রস্তুতি চলছে।



আই নিউজ / এপি

ফেসবুক পেইজ