আজমিরীগঞ্জে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ | Sylhet i News
বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৯ পূর্বাহ্ন

আজমিরীগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশ ২০২১-০৯-১৬ ১৯:০৬:৫১
আজমিরীগঞ্জে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ

আসন্ন দুর্গা পুঁজোকে সামনে রেখে হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে শিল্পীর নিপূণ হাতে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। উপজেলার বিভিন্ন মন্ডপে কারিগররা ফুটিয়ে তুলছেন দুর্গা, লক্ষী, স্বরসতী, গণেশ ও কার্তিকের প্রতিমা। কোনো মন্ডপে চলছে অবকাঠামো তৈরি আবার কোথাও চলছে মাটি দিয়ে প্রতিমা তৈরির কাজ।

হিন্দু ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গা পুঁজো ঘনিয়ে আসায় যেনো দম ফেলার ফুসরত নেই আজমিরীগেঞ্জর প্রতিমা তৈরির কারিগরদের। অপরদিকে দেবী দুর্গাকে ঢাঁক, ঢোল, উলু আর শঙ্খ ধ্বনিতে বরণ করতে অধীর আগ্রহে প্রহর গুনছেন ভক্তকুল।

সরজমিনে উপজেলার বিভিন্ন পুঁজা মন্ডপে ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন আকার আর নানা সব কারুকাজে দেবী দুর্গার প্রতিমা বানানোর ব্যস্ততা। সকাল থেকে গভীর রাত র্পযন্ত কাঁদামাটি, খড়, বাঁশ এবং সুতলি দিয়ে তৈরি হচ্ছে প্রতিমা। প্রতিমার র্পূণ রুপ দিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃৎ শিল্পীরা।

করোনা পরিস্থিতিতেও আশানুরুপ প্রতিমা তৈরির কাজ পেয়ে সন্তোষ প্রকাশ করছেন স্থানীয় প্রতিমা তৈরির কারিগরেরা।

পৌরসভার মৃৎ শিল্পী ঝন্টু পাল বলেন, করোনা পরিস্থিতেও যথেষ্ট ভাল কাজের অর্ডার পেয়েছি। আমার সাথে আরো চারজন নিয়ে দিন রাত কাজ করে যাচ্ছি। আশা করছি ভালোভাবে কাজগুলো শেষ করতে পারবো, সেই সাথে দুটো আয়ও হবে।

বাংলাদেশ পূঁজা উদযাপন পরিষদের আজমিরীগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি জীবন চন্দ্র চন্দ জানান, চলতি বৎসরে উপজেলায় সর্বজনীন ভাবে ৩৮টি ও ব্যক্তিগত ভাবে ১টি সহ মোট ৩৯টি মন্ডপে অনুষ্ঠিত হবে শারদীয় দুর্গা উৎসব। তন্মধ্যে পৌরসভায় ৮টি, সদর ইউনিয়নে ৩টি, শিবপাশায় ১টি, কাকাইলছেও ৬টি, জলসুখায় ৪টি এবং বদলপুরে ১৬টি সর্বজনীন ও ১টি ব্যক্তিগত।

তিনি আরও জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রতিটি মন্ডপে পূঁজা উদযাপণের জন্য ইতিমধ্যে সকলকে মৌখিক ভাবে জানিয়ে দেয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় ভাবে দিকনির্দেশনা এখনো পাইনি, তবে শীঘ্রই পেয়ে যাব। উপজেলা পূঁজা উদযাপন প্রস্তুতি সভায় প্রত্যেক কমিটিকে কেন্দ্রীয় দিক নির্দেশনা জানিয়ে দেয়া হবে।

আগামী ১১ অক্টোবর মহাষষ্টীতে দেবী বোধনের মধ্য দিয়ে শুরু হবে পূঁজার আনুষ্ঠানিকতা। তারপর ১২, ১৩, ১৪ অক্টোবর সপ্তমী, অষ্টমী, নবমীর পর ১৫ অক্টোবর বিজয়া দশমীতে দেবীর প্রতিমা বির্সজনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এ বৎসরের শারদীয় উৎসব।

এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা র্নিবাহী র্কমর্কতা শফিকুল ইসলাম জানান, আসন্ন শারদীয় দুর্গা পুঁজা উপলক্ষে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূঁজা উদযাপনের জন্য সকল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারমান, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে নিয়ে প্রশাসনের পক্ষ থেকে মিটিং করা হবে। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বাহিনীকে নির্দেশনা দেয়া হবে।

আইনিউজ/এসএম

ফেসবুক পেইজ