কুলাউড়ায় দাদার পর নাতীকেও কুপিয়ে হত্যা | Sylhet i News
বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :>>

প্রকাশ ২০২১-১০-১২ ২০:০২:১০
কুলাউড়ায় দাদার পর নাতীকেও কুপিয়ে হত্যা

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় আশরাফুল ইসলাম তুহিন (১৮) নামে এক তরুণকে ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

সোমবার (১১ অক্টোবর) রাত ১১ টার দিকে উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের রাঙ্গিছড়া চা বাগানের ১ নম্বর সেকশনে এ ঘটনাটি ঘটে। 

তুহিন কর্মধা ইউনিয়নের পূর্ব বাবনিয়া গ্রামের সাজ্জাদ আলীর ছেলে ও বাবনিয়া নিজামিয়া দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর ছাত্র। 

স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, প্রায় ৪৫ বছর আগে তুহিনের দাদা মোশারফ আলীকেও জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মনছড়া এলাকার পাহাড়ি টিলায় নৃশংসভাবে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

এদিকে এই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কুলাউড়া সদর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের ইসমাইল আলী নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রাঙ্গিছড়া চা বাগানের পাশে মনছড়া এলাকায় তুহিনের পিতা সাজ্জাদ আলীর পানজুম সহ বিভিন্ন ফসলাদির বাগান রয়েছে। সেখানে একটি ঘর আছে। সেই বাগান তুহিনের বাবা সাজ্জাদ আলীসহ পরিবারের সদস্যরা দেখভাল করতেন। ঘটনার দিন সোমবার রাতে রাঙ্গিছড়া বাজার থেকে সাজ্জাদ আলীর জন্য খাবার নিয়ে পান জুমে যাবার পথে তুহিনকে দুর্বৃত্তরা ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে বাগানের রাস্তার পাশে ফেলে রেখে যায়।

খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কুলাউড়া সার্কেল) সাদেক কাওসার দস্তগীর, অফিসার্স ইনচার্জ বিনয় ভূষণ রায়, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আমিনুল ইসলাম, কর্মধা ইউপি চেয়ারম্যান এম এ রহমান আতিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে পুলিশ তুহিনের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

স্থানীয় কর্মধা ইউপি চেয়ারম্যান এম এ রহমান আতিক বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি, প্রেমঘটিত কারণে এই হত্যাকান্ডটি ঘটতে পারে।

এ বিষয়ে কুলাউড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, রাতে বাগান কর্তৃপক্ষ রাস্তার পাশে মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখতে পেয়ে পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ পাইনি।

আই নিউজ/ জেইউ

ফেসবুক পেইজ