শ্রীমঙ্গলে গভীর রাতে মেয়র প্রার্থীর বাসভবনে হামলা | Sylhet i News
মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:২২ পূর্বাহ্ন



শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি :>>

প্রকাশ ২০২১-১১-২৬ ১৮:৩৫:১১
শ্রীমঙ্গলে গভীর রাতে মেয়র প্রার্থীর বাসভবনে হামলা

শ্রীমঙ্গলে পৌর নির্বাচনের এক স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর বাসভবনে গভীর রাতে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মেয়র প্রাথীর ছেলে মুরাদ হোসেন সুমন (২৪) ও ভাতিজা মোশারফ হোসেন রাজ (২৩) দা’য়ের আঘাতে মারাত্মক আহত হয়েছেন। এর মধ্যে মোশারফ হোসেন রাজ ঢাকার এভারকেয়ার হাসপালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) দিবাগত গভীর রাতে শ্রীমঙ্গলে পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী  ও বর্তমান মেয়র মহসিন মিয়া মধুর শহরের ধানসিঁড়ি এলাকার বাসভবনে এ হামলার ঘটনা ঘটে। 

মহসিন মিয়া মধু এ ঘটনায় প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী নৌকা মার্কার প্রার্থী অধ্যক্ষ সৈয়দ মনসুরুল হকের কর্মীদের অভিযুক্ত করেছেন। তিনি শুক্রবার বিকালে তার বাসভবনে জেলার বিভিন্ন গনমাধ্যম কর্মীদের কাছে এ অভিযোগ করেন।

মহসিন মিয়া মধু বলেন, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত প্রায় সাড়ে ১২ টার দিকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন রাহিদের নেতৃত্বে শতাধিক ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীরা দা, চা-পাতি, ও হকিস্টিক হাতে বাসভবনের মেইন গেইটের তালা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে। এসময় বাসার উঠানে দাঁড়িয়ে থাকা আমার ভাতিজা মোশারফ হোসেন রাজ ও আমার ছেলে মুরাদ হুসাইন সুমনকে দা দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে জখম করে। এরপর সন্ত্রাসীরা আমাকে প্রাণে হত্যার জন্য বাসার ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করলে আমি প্রশাসনকে ফোন করে সাহায্য প্রার্থনা করি।

খবর পেয়ে ইউএনও, পুলিশ ও র‌্যাবের সদস্যরা ঘটনাস্থলে আসেন। তাদের উপস্থিতিতেই সন্ত্রাসীরা আবারো হামলা চালানোর চেষ্টা করে। তিনি বলেন, আমার জনপ্রিয়তার কাছে নির্বাচনে নৌকা প্রার্থীর নিশ্চিত পরাজয় জেনে এই সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছে। 

তিনি অভিযোগ করেন, এই নগ্ন সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় শ্রীমঙ্গল আসন্ন নির্বাচন নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে তীব্র আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। এখানে সুষ্টু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের কোন পরিবেশ নেই। প্রতিপক্ষ শহরের কেন্দ্রস্থল দখল করে জনসভা করলেও আমার পূর্ব নির্ধারিত নির্বাচনী জনসভার অনুমতি বাতিল করেছে প্রশাসন।

মহসিন মিয়া মধু  বুধবার দুপুরে সাংবাদিক সম্মেলন করে নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে আশঙ্কা জানানোর পর রাতেই এই হামলার ঘটনা ঘটলো।

এদিন বিকেল ৫ টায় পাল্টা এক সংবাদ সম্মেলন করে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ সৈয়দ মনসুরুল হক এ অভিযোগ অস্বীকার করে, স্বতন্ত্র প্রার্থীর লোকজনদের হাতে তাদের ৩ ছাত্রলীগ কর্মী হামলার স্বীকার হয়েছেন বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন রাহিদ, তামিম ও সাদিকুল নামে ৩ কর্মী স্বতন্ত্র প্রার্থী মহসিন মিয়ার বাসভবনের সামনে রাস্তা দিয়ে যাবার সময় তাদের বাসার মধ্যে ধরে নিয়ে গিয়ে ছুরিকাঘাত করে। আহত দেলোয়ার হোসেন রাহিদ বর্তমানে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এছাড়া শ্রীমঙ্গলে নির্বাচনের স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করছে বলেও তিনি জানান। এদিকে অপ্রীতিকর পরিস্থিতিএড়াতে প্রশাসনের পক্ষে শহরে র‌্যাব, পুলিশ ও বিজিবি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

এমএনআই

ফেসবুক পেইজ